পাতা:Dialogues, Intended to Facilitate the Acquiring of the Bengali Language.djvu/১১৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

(106)

 যে আজ্ঞা মহাশয়। বলিয়া আসি।

 যা শীঘ্ৰ করিয়া বলিয়া আয়।

তৎকথা।

 এই যে মহাশয় জমাদার সাহেব আসিয়াছেন।

 কেমন হে জমাদার মুহরিরা এখনতক কেহ আইসে নাই।

 মুহরিরা আসিয়াছে। কেন তাহারদের মহাশয়।

 তুমি এই রাইয়তকে লইয়া যাও মুহরিদিগের কাছে দেখিতে বল ইহার পাট্টায় কত বিঘা জমী জমা লেখা যায়। ইহার পাট্টা দেখিয়া হিসাব করিয়া লইয়া আইস।

 যে আজ্ঞা মহাশয় । ইহাকে কাছারি লইয়া যাই।

 যাইয়া মুহরিরদিগকে কহিল। এ রাইয়তের পাট্টা দেখিয়া হিসাব করুন কর্ত্তা কহিয়াছেন।

 ও রাইয়তের হিসাব করাই অাছে আজি আর কি হিসাব করিব।

 মহাশয় আমার হিসাব কি প্রকার করিয়াছেন শুনি নাই। আমাকে বুঝাইয়া দেউন।

 তুই প্ৰতিমাসে হিসাব করিস তবু তোর মনে থাকে না ঠেঁটা এক বেটা।


 আমার মহলে কত জমী তোমরা লেখ তাহা রাতি দিন আমি কিছু বুঝিতে পারি না।

 তোর মহলে সাবেক যে জমী লেখা যায় তাহা এখন কিছু কমি হইয়াছে।

 সাবেক যে জমী মহলে লেখা আছে তাহাহইতে দুই বন্দ ব্ৰহ্মত্ৰ দিয়াছেন আর জমী আছে।

 তোর মহলহইতে কবে ব্ৰহ্মত্ৰ দেওয়া গিয়াছে ব্ৰহ্মত্ৰের সাতে তোর কি।


 ভট্টাচার্য্য মহাশয়কে যে জমী ব্ৰহ্মত্ৰ দিয়াছেন সে কাহার মহলহইতে।