পাতা:Vanga Sahitya Parichaya Part 1.djvu/১০৩৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শ্ৰীকৃষ্ণের বেশ ও দোলায় আরোহণ । g শঙ্কর দাসের ভাগবত । (রচনা-কাল খৃষ্টীয় অষ্টাদশ শতাব্দী। ) দোল-লীলা । স্বৰ্গ-গঙ্গাজল তবে ব্রহ্মাএ লইয়া। কৃষ্ণকে করায় স্নান আনন্দিত হইয়া ॥ স্নানোদক শিরে নিল সৰ্ব্ব দেবগণ । কৃষ্ণেরে করায়ে সৰ্ব্ব অঙ্গ-মার্জন ॥ ইন্দ্র পরায় তবে বিচিত্র বসন। সৰ্ব্বাঙ্গে লেপন কৈল অগুরু চন্দন ॥ চরণে নুপুর দিল রশনা কোমরে। নানা রত্বে নিরমিত বলয় দুই করে ॥ ভুজযুগে তাড় দিল অতি মনোহর। রত্বের কুণ্ডল কর্ণে দেখিতে সুন্দর ॥ নানা রত্বে নিরমিত গজমতি হার । আজানুলম্বিত দিল গলে বনমাল ॥ ভালে গোরোচনা দিব্য করি ফোট । নীল মেঘেতে জেন বিজলীর ছটা ॥ মস্তকে মুকুট দিল বিচিত্ৰ নিৰ্ম্মাণ । তুলনা দিবার নাহি তাহার সমান ॥ শ্ৰীকৃষ্ণের বেশ কৈল দেব পুরন্দর। মহেশ থুইল নাম দেবের ঈশ্বর ॥ কহিল ব্ৰহ্মারে শিব শুনহ বচন । দোলে চড়াইল কৃষ্ণ করিয়া শুভক্ষণ ॥ শুভক্ষণে দোলে চড়েন দামোদর। পুষ্পবৃষ্টি করিলেন দেব পুরন্দর। দেব-দেবেশ্বর কৈল দোলে আরোহণ । সকল দেবতা কৈল চরণ বন্দন ॥ রুদ্র পিতামহ শক্র আর দিবাকর। দোলের পীড়িতে তারা উঠিল সত্বর ॥ চারি কোণে চারি দেব আসন ধরিয়া । কৃষ্ণকে দোলান তারা আনন্দিত হৈয়া ॥