পাতা:Vanga Sahitya Parichaya Part 1.djvu/৭৪৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ుచ్చెరి বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় । রথত্যক্ত হৈয়া তবে চক্ৰ লৈল হাতে। ভীষ্মক মারিতে যাএ ত্ৰিজগত-নাথে ॥ কৃষ্ণের যে পদভরে কাপে বস্তুমতী । মৃগেন্দ্র ধরিতে যাএ যেন পশুপতি ॥ অস্ত্রক লইয়া ভীষ্ম হাতে ধনুঃশরে। নির্ভয় বোলন্ত ভীষ্ম রথের উপরে ॥ জগতের নাথ আইলা মারিবার মোক (১)। রথ হোতে পাড় মোক দেখতক লোক ৷ তুমি মোক মারিলে তরিমু পরলোক । ত্রিভুবনে এহি খ্যাতি ঘুষিবেক মোক । দেখিয়া কৃষ্ণের কোপ পাণ্ডুর নন্দন। রথ হোতে ত্যক্ত হৈয়া ধরিল চরণ ॥ দশ পদ অন্তরে ধরিল দুই হাতে। সংহর সংহর কোপ ত্রিভুবন-নাথে ॥ প্রতিজ্ঞ করিছে মুঞি তোহ্মার অগ্রতে। পুত্ৰ দিব্য যদি ভীষ্ম না পারো মারিতে ॥ ভীষ্ম মারি কুরুবল করিমু যে ক্ষয় । তোহ্মার প্রসাদে হইব সংগ্রামেত জয় ॥ অৰ্জুনের বচন শুনিয়া দামোদর। ক্রোধ এড়ি উঠিলেক রথের উপর। দুই বীর শঙ্খনাদে পূরিল গগন। নানা বাদ্য শঙ্খরব সৈন্তের ঘোষণ ॥ দিন-কৃত নিৰ্ব্বাহিল দশ সহস্র মারি । হস্তী অশ্ব রথী তবে ভীষ্মে হো সংহারি ॥ হেন কালে দিবাকর হইল অবশেষ । দুই সৈন্য চলি গেল যার যে নিদেশ ॥ (১) আমাকে ।