পাতা:Vanga Sahitya Parichaya Part 1.djvu/৮৪১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সারল কবির মহাভারত । সারল উৎকলনিবাসী ছিলেন। কেহ কেহ ভ্ৰমত্ৰমে ইহাকে শারণ বলিয়া প্রচার করিয়াছেন। ২০০ শত বৎসরের হস্তলিখিত পুথি হইতে নিম্নের অংশ উদ্ধত হইল। বিরাট-পৰ্ব্ব । বিরাট-রাজ-সভায় পাণ্ডবগণের আগমন । পাণ্ডবদের বনবাসের শেষ বৎসর অজ্ঞাতভাবে যাপন করার প্রতিশ্রুতি ছিল। এই অভিপ্রায়ে পাণ্ডবগণ ছদ্মবেশে বিরাট-রাজার সভায় আগমন করিতেছেন। সভা দিয়া বসিয়াছে মৎস্ত-অধিপতি । পাত্ৰ-মন্ত্রিগণ সব ব্রাহ্মণ-সংহতি ॥ চলিছেন যুধিষ্টির রাজার সভায়। দুরে হৈতে মৎস্ত-রাজা দেখিবারে পায় ॥ সভাসদগণে ডাকি কহিছে বচন। এইত পুরুষবর বটে কোন জন ॥ আজানুলম্বিত-ভুজ কন্দপ-শরীর। করিবর জিনিয়া গমন অতি ধীর । হস্ত পদ সুকোমল অতি বিচক্ষণ । অনুভবে বুঝি এই ক্ষত্রিয়-লক্ষণ । কিন্তু ব্রাহ্মণের বেশে আসিতেছে হেথায় । যুধিষ্ঠির । কথন কেহ কোন জনা দেখেছ এহায় ॥ মহারাজ চক্রবর্তী হব এই জন । ছদ্মরূপে আসিতেছে করিয়া বঞ্চন । এতেক বচন রাজা বলিতে বলিতে । নৃপ-সন্নিধানে ধৰ্ম্ম আইলা ত্বরিতে ॥ রাজার নিকটে আসি দুই বাহু তুলি। দাণ্ডাইল সভামধ্যে জয়যুক্ত বলি । প্রণমিঞা মৎস্ত-রাজা দিলেন আসন । কি নাম কিবা গোত্র আল্যা কি কারণ ॥