শ্রান্তি

কত বার মনে করি,   পূর্ণিমানিশীথে,
স্নিগ্ধ সমীরণ,
নিদ্রালস-আঁখি-সম  ধীরে যদি মুদে আসে
এ শ্রান্ত জীবন !
গগনের অনিমেষ   জাগ্রত চাঁদের পানে
মুক্ত দুটি বাতায়নদ্বার—
সুদূরে প্রহর বাজে,  গঙ্গা কোথা বহে চলে,
নিদ্রায় সুষুপ্ত দুই পার।
মাঝি গান গেয়ে যায়  বৃন্দাবনগাথা
আপনার মনে—
চিরজীবনের স্মৃতি  অশ্রু হয়ে গ’লে আসে
নয়নের কোণে।
স্বপ্নের সুধীর স্রোতে দূরে ভেসে যায় প্রাণ
স্বপ্ন হতে নিঃস্বপ্ন অতলে,
ভাসানো প্রদীপ যথা  নিবে গিয়ে সন্ধ্যাবায়ে
ডুবে যায় জাহ্নবীর জলে।

১৬ বৈশাখ ১৮৮৮