বিলম্বিত

অনেক হল দেরি,
আজও তবু দীর্ঘ পথের
অন্ত নাহি হেরি।
তখন ছিল দখিন হাওয়া
আধ ঘুমাে আধ্‌ জাগা,
তখন ছিল সর্ষেক্ষেতে
ফুলের আগুন লাগা।
তখন আমি মালা গেঁথে
পদ্মপাতায় ঢেকে
পথে বাহির হয়েছিলেম
রুদ্ধ কুটীর থেক,!
অনেক হল দেরি,
আজও তবু দীর্ঘ পথের
অন্ত নাহি হেরি॥

বসন্তের সে মালা
আজ কি তেমন গন্ধ দেবে
নবীন-সুধা-ঢালা।
আজকে বহে পুবে বাতাস,
মেঘে আকাশ জুড়ে,
ধানের ক্ষেতে ঢেউ উঠেছে
নব-নবাঙ্কুরে॥
হাওয়ায় হাওয়ায় নাইকো রে হায়
হাল্কা সে হিল্লোল,
নাই বাগানে হাস্যে গানে
পাগল গণ্ডগােল।
অনেক হল দেরি,
আজও তবু দীর্ঘ পথের
অন্ত নাহি হেরি॥

হল কালের তুল,
পুবে হাওয়ায়.ধরে দিলেম
দখিন-হাওয়ার ফুল।
এখন এল অন্য সুরে
অন্য গানের পালা,
এখন গাঁথাে অন্য ফুলে
অন্য ছাঁদের মালা।

বাজছে মেঘের গুরু গুরু,
বাদল ঝরঝর,
সজলয়ে কদম্ববন।
কাঁপছে থরথর।
অনেক হল দেরি,
আজও তবু দীর্ঘ পথের
অন্ত নাহি হেরি॥

}}

২৬ জ্যৈষ্ঠ ১৩০৭