ভীরুতা

গভীর সুরে গভীর কথা
শুনিয়ে দিতে তােরে
সাহস নাহি পাই।
মনে মনে হাসবি কি না
বুঝব কেমন করে।
আপনি হেসে তাই
শুনিয়ে দিয়ে যাই-
ঠাট্টা ক’রে ওড়াই, সখী,
নিজের কথাটাই।
হালকা তুমি কর পাছে
হালকা করি, ভাই,
আপন ব্যথাটাই॥

সত্য কথা সরলভাবে
শুনিয়ে দিতে তােরে
সাহস নাহি পাই।
অবিশ্বাসে হাসবি কি না
বুঝব কেমন করে।
মিথ্যা ছলে তাই
শুনিয়ে দিয়ে যাই-
উল্টা করে বলি আমি
সহজ কথাটাই।
ব্যর্থ তুমি কর পাছে
ব্যর্থ করি, ভাই,
আপন ব্যথাটাই॥

সােহাগ-ভরা প্রাণের কথা
শুনিয়ে দিতে তােরে
সাহস নাহি পাই।
সােহাগ ফিরে পাব কি না
বুঝব কেমন করে।
কঠিন কথা তাই
শুনিয়ে দিয়ে যাই-
গর্বছলে দীর্ঘ করি
নিজের কথাটাই।

ব্যথা পাছে না পাও তুমি
লুকিয়ে রাখি তাই
নিজের ব্যথাটাই॥

ইচ্ছা করে নীরব হয়ে
রহিব তাের কাছে,
সাহস নাহি পাই।
মুখের ’পরে বুকের কথা
উথলে ওঠে পাছে,
অনেক কথা তাই
শুনিয়ে দিয়ে যাই-
কথার আড়ে আড়াল থাকে
মনের কথাটাই।
তােমায় ব্যথা লাগিয়ে শুধু
জাগিয়ে তুলি, ভাই,
আপন ব্যথাটাই॥

ইচ্ছা করি সুদূরে যাই,
না আসি তাের কাছে-
সাহস নাহি পাই।
তােমার কাছে ভীরুতা মাের
প্রকাশ হয় রে পাছে,

কেবল এসে তাই
দেখা দিয়েই যাই-
স্পর্ধাতলে গােপন করি
মনের কথাটাই।
নিত্য তব নেত্রপাতে
জ্বালিয়ে রাখি, ভাই,
আপন ব্যথাটাই॥