দুন্দুভি বেজে ওঠে
           ডিম্‌-ডিম্‌ রবে ,
সাঁওতাল-পল্লীতে
           উৎসব হবে ।
পূর্ণিমাচন্দ্রের
           জ্যোৎস্নাধারায়
সান্ধ্য বসুন্ধরা
           তন্দ্রা হারায় ।
  
তাল-গাছে তাল-গাছে
           পল্লবচয়
চঞ্চল হিল্লোলে
           কল্লোলময় ।
আম্রের মঞ্জরী
           গন্ধ বিলায় ,
চম্পার সৌরভ
           শূন্যে মিলায় ।
  
দান করে কুসুমিত
           কিংশুকবন
সাঁওতাল-কন্যার
           কর্ণভূষণ ।
অতিদূর প্রান্তরে
           শৈলচূড়ায়
মেঘেরা চীনাংশুক-
           পতাকা উড়ায় ।
  
ওই শুনি পথে পথে
           হৈ হৈ ডাক ,
বংশীর সুরে তালে
           বাজে ঢোল ঢাক ।
নন্দিত কণ্ঠের
           হাস্যের রোল
অম্বরতলে দিল
           উল্লাসদোল ।
  
ধীরে ধীরে শর্বরী
           হয় অবসান ,
উঠিল বিহঙ্গের
           প্রত্যুষগান ।
বনচূড়া রঞ্জিল
           স্বর্ণলেখায়
পূর্বদিগন্তের
           প্রান্তরেখায় ।