তীর্থরেণু/চির বিচিত্র

চির বিচিত্র

জগতের এই নহবৎ-ঘরে বাদ্যকরের দলে,
জনম-নাকাড়া বাজাতে বারেক একে একে সবে চলে!
নিত্য প্রভাতে নুতন সত্য জেগে ওঠে অভিরাম,
গৌরব-ঘটা ঘিরি’ লয়ে চলে নূতন নূতন নাম!

সংসার যদি সমানে চলিত একটানা এক ঘেয়ে,
কত না তত্ত্ব গুমরি' মরিত প্রকাশের পথ চেয়ে;
তপনের ছটা যদি না ফুরাত ফুরালে দিনের নাট,
তা হলে কি কভু ফুটিত প্রদোষে ফুল্ল তারার হাট?
শিশিরের যদি অন্ত না হ'ত, তবে বনে উপবনে
গোলাপের কলি আঁখি কি মেলিত ফাগুনের চুম্বনে!

জামি।