"পাতা:রাজর্ষি-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১৭৪" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

+
(পাইউইকিবট স্পর্শ সম্পাদনা)
(+)
পাতার অবস্থাপাতার অবস্থা
-
মুদ্রণ সংশোধন করা হয়নি
+
মুদ্রণ সংশোধন করা হয়নি
পাতার প্রধান অংশ (পরিলিখিত হবে):পাতার প্রধান অংশ (পরিলিখিত হবে):
৩ নং লাইন: ৩ নং লাইন:
 
রাজা বলিলেন, “আর-সব হইল, কেবল নক্ষত্র আমাকে ভাই বলিল না ।”
 
রাজা বলিলেন, “আর-সব হইল, কেবল নক্ষত্র আমাকে ভাই বলিল না ।”
 
সুজা তীব্রভাবে কহিলেন, “মহারাজ, আর সকলেই অতি সহজেই ভাইয়ের মতো ব্যবহার করে, কেবল নিজের ভাই করে না ।” সুজার হৃদয় হইতে এখনো শেল উৎপাটিত হয় নাই ।
 
সুজা তীব্রভাবে কহিলেন, “মহারাজ, আর সকলেই অতি সহজেই ভাইয়ের মতো ব্যবহার করে, কেবল নিজের ভাই করে না ।” সুজার হৃদয় হইতে এখনো শেল উৎপাটিত হয় নাই ।
  +
<section begin="44" /><section end="44" />
উপসংহার
 
  +
<section begin="45" />{{x-larger|{{কেন্দ্র|উপসংহার}}}}
এইখানে বলা আবশ্ব্যক, তিলটি বালক সুজার তিন ছদ্মবেশী কন্যা । সুজা মক্কা যাইবার উদ্দেশে চট্টগ্রাম বন্দরে গিয়াছিলেন । কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে গুরুতর বর্ষার প্রাদুর্ভাবে একখানিও জাহাজ পাইলেন না। অবশেষে হতাশ হইয়া ফিরিয়া আসিবার পথে, গোবিন্দমাণিক্যের সহিত দুর্গে দেখা হয়। কিছুদিন দুর্গে বাস করিয়া মুজ সংবাদ পাইলেন এখনো সম্রাটু-সৈন্য র্তাহাকে সন্ধান করিতেছে। গোবিন্দমাণিক্য যানাদি ও বিস্তর অনুচর-সমেত র্তাহার বন্ধু আরাকান-পতির নিকটে তাহাকে প্রেরণ করেন। যাইবার সময় মুজা তাহাকে বহুমূল্য তরবারি উপহার
 
  +
স্বরূপ দান করেন ।
 
 
এইখানে বলা আবশ্যক তিনটি বালক সুজার তিন ছদ্মবেশী কন্যা। সুজা মক্কা যাইবার উদ্দেশে চট্টগ্রাম বন্দরে গিয়াছিলেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে গুরুতর বর্ষার প্রাদুর্ভাবে একখানিও জাহাজ পাইলেন না। অবশেষে হতাশ হইয়া ফিরিয়া আসিবার পথে, গোবিন্দমাণিক্যের সহিত দুর্গে দেখা হয়। কিছুদিন দুর্গে বাস করিয়া সুজা সংবাদ পাইলেন এখনো সম্রাটসৈন্য তাঁহাকে সন্ধান করিতেছে। গোবিন্দমাণিক্য যানাদি ও বিস্তর অনুচর-সমেত তাঁহার বন্ধু আরাকান-পতির নিকটে তাঁহাকে প্রেরণ করেন। যাইবার সময় সুজা তাঁহাকে বহুমূল্য তরবারি উপহারস্বরূপ দান করেন।
ইতিমধ্যে রাজা রঘুপতি ও বিম্বনে মিলিয়া সমস্ত গ্রামকে যেন সচেতন করিয়া তুলিলেন। রাজার দুর্গ সমস্ত গ্রামের প্রাণ হইয়া উঠিল।
 
  +
 
ইতিমধ্যে রাজা রঘুপতি ও বিল্বনে মিলিয়া সমস্ত গ্রামকে যেন সচেতন করিয়া তুলিলেন। রাজার দুর্গ সমস্ত গ্রামের প্রাণ হইয়া উঠিল।
  +
<section end="45" />