"গীতাঞ্জলি/৬০" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
 
<pages index="গীতাঞ্জলি - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu" from=12 to=12/>
 
{{শীর্ষক
| শিরোনাম= [[../]]
| লেখক = রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
|অনুচ্ছেদ ='''জগৎ-পারাবারের তীরে'''
| অনুচ্ছেদ = এবার নীরব করে দাও হে তোমার
|পূর্ববর্তী =[[../৫৯/]]
| আদ্যক্ষর = এ
|পরবর্তী = [[../৬১/]]
| পূর্ববর্তী = [[../৫৯/]]
|টীকা =[[শিশু (কাব্যগ্রন্থ)|শিশু]]
| পরবর্তী = [[../৬১/]]
|লেখক =রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
| বছর = ১৯১৩
| টীকা =
|প্রবেশদ্বার =
}}
<pages index="গীতাঞ্জলি - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu" from=1283 to=1283/>
<div style="padding-left:2em;">
<poem>
<center>
 
জগৎ-পারাবারের তীরে
ছেলেরা করে মেলা ।
অন্তহীন গগনতল
মাথার 'পরে অচঞ্চল,
ফেনিল ওই সুনীল জল
নাচিছে সারা বেলা ।
উঠিছে তটে কী কোলাহল-
ছেলেরা করে মেলা ।।
 
বালুকা দিয়ে বাঁধিছে ঘর,
ঝিনুক নিয়ে খেলা ।
বিপুল নীল সলিল-'পরি
ভাসায় তারা খেলার তরী
আপন হাতে হেলায় গড়ি
পাতায় গাঁথা ভেলা ।
জগৎ-পারাবারের তীরে
ছেলেরা করে খেলা ।।
 
জানেনা তারা সাঁতার দেওয়া,
জানে না জাল ফেলা ।
ডুবারি ডুবে মুকুতা চেয়ে,
বণিক ধায় তরণী বেয়ে-
ছেলেরা নুড়ি কুড়ায়ে পেয়ে
সাজায় বসি ঢেলা ।
রতন ধন খোঁজে না তারা,
জানে না জাল ফেলা ।।
 
ফেনিয়ে উঠে সাগর হাসে,
হাসে সাগর-বেলা ।
ভীষণ ঢেউ শিশুর কানে
রচিছে গাথা তরল তানে,
দোলনা ধরি যেমন গানে
জননী দেয় ঠেলা ।
সাগর খেলে শিশুর সাথে,
হাসে সাগর-বেলা ।।
 
জগৎ-পারাবারের তীরে
ছেলেরা করে মেলা ।
ঝঞ্ঝা ফিরে গগনতলে,
তরণী ডুবে সুদূর জলে,
মরণদূত উড়িয়া চলে-
ছেলেরা করে খেলা ।
জগৎ-পারাবারের তীরে
শিশুর মহামেলা ।।
 
</center>
</poem>
</div>
 
[[বিষয়শ্রেণী:গীতাঞ্জলি]]