"পাতা:আমি কেন ঈশ্বরে বিশ্বাস করিনা - প্রবীর ঘোষ.pdf/১২০" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
 
পাতার প্রধান অংশ (পরিলিখিত হবে):পাতার প্রধান অংশ (পরিলিখিত হবে):
৩ নং লাইন: ৩ নং লাইন:
 
{{gap}}ভারতে বর্ণাশ্রম সৃষ্টি করেছিল মনুর দেওয়া ধর্মীয় অনুশাসন। মনু সংহিতা'য় মনু বললেনঃ
 
{{gap}}ভারতে বর্ণাশ্রম সৃষ্টি করেছিল মনুর দেওয়া ধর্মীয় অনুশাসন। মনু সংহিতা'য় মনু বললেনঃ
   
{{center|লােকানা বিবৃদ্ধার্থং মুখবাহুরুপাদত।}}
+
{{center|লােকানান্তু বিবৃদ্ধার্থং মুখবাহুরুপাদতঃ।}}
{{center|ব্রাহ্মণং ক্ষত্রিয়ং বৈশ্যং শুদ্ৰন্ত নিরবয়ৎ|১:৩১}}}
+
{{center|ব্রাহ্মণং ক্ষত্রিয়ং বৈশ্যং শুদ্ৰঞ্চ নিরবর্তয়ৎ[১:৩১]}}
   
 
{{gap}}অর্থাৎ, পৃথিবীর মানুষদের সমৃদ্ধি কামনায় পরমেশ্বর নিজের মুখ, বাহু, উরু ও পা থেকে যথাক্রমে ব্রাহ্মণ, ক্ষত্রিয়, বৈশ্য ও শূদ্র—এই চার বর্ণ সৃষ্টি করলেন।
 
{{gap}}অর্থাৎ, পৃথিবীর মানুষদের সমৃদ্ধি কামনায় পরমেশ্বর নিজের মুখ, বাহু, উরু ও পা থেকে যথাক্রমে ব্রাহ্মণ, ক্ষত্রিয়, বৈশ্য ও শূদ্র—এই চার বর্ণ সৃষ্টি করলেন।
   
{{gap}}ব্রাহ্মণদের কাজ তথা ধর্ম হল—অধ্যাপন, অধ্যয়ন, যজন, যাজন, দান, ও প্রতিগ্ৰহ, এই ছয়টি, |১ঃ৮৮|
+
{{gap}}ব্রাহ্মণদের কাজ তথা ধর্ম হল—অধ্যাপন, অধ্যয়ন, যজন, যাজন, দান, ও প্রতিগ্ৰহ, এই ছয়টি। [১ঃ৮৮]
   
 
{{gap}}ক্ষত্রিয়দের কাজ তথা ধর্ম—প্রজারক্ষণ, দান, যজ্ঞ, অধ্যয়ন, ভােগাসক্তি নিয়ন্ত্রণ। [১ : ৮৯]
 
{{gap}}ক্ষত্রিয়দের কাজ তথা ধর্ম—প্রজারক্ষণ, দান, যজ্ঞ, অধ্যয়ন, ভােগাসক্তি নিয়ন্ত্রণ। [১ : ৮৯]
১৭ নং লাইন: ১৭ নং লাইন:
   
 
{{center|একমেব তু শূদ্রস্য প্রভুঃ কৰ্ম্ম সমাদিশৎ।}}
 
{{center|একমেব তু শূদ্রস্য প্রভুঃ কৰ্ম্ম সমাদিশৎ।}}
{{center|এতেষামেব বর্ণানাং শুশ্রষামনসূয়য়া।। [১ঃ৯৯]}}
+
{{center|এতেষামেব বর্ণানাং শুশ্রূষামনসূয়য়া।। [১ঃ৯৯]}}
   
 
{{gap}}অর্থাৎ, ক্ষুণ্ণ না হয়ে, প্রসন্নমনে ব্রাহ্মণ, ক্ষত্রিয় ও বৈশ্যদের সেবা করা শূদ্রগণের প্রধান কর্তব্য, এই নির্দেশ ব্রহ্মা দিলেন।
 
{{gap}}অর্থাৎ, ক্ষুণ্ণ না হয়ে, প্রসন্নমনে ব্রাহ্মণ, ক্ষত্রিয় ও বৈশ্যদের সেবা করা শূদ্রগণের প্রধান কর্তব্য, এই নির্দেশ ব্রহ্মা দিলেন।
   
{{gap}}‘শূদ্র' নামের এই দাসদের পারিশ্রমিক বা বেতন দিতে হত না। দেবার প্রশ্নই নেই। মনু বলেছেন-দাসত্বের কাজ নির্বাহ করার জন্য বিধাতা। শূদ্রকে সৃষ্টি করছেন—“দাস্যায়ৈর হি সৃষ্টোসৌ ব্রাহ্মণসা স্বয়ম্ভুবা" (৮:৪১৩]। কিন্তু দাসদের বাঁচিয়ে তো রাখতে হবে, বেগার খাটাবার জন্যেই বাঁচিয়ে রাখতে হবে । শিল্প ও কৃষির দ্বারা নিজেদের ভােগকে চরিতার্থ করার জন্য এইসব শিল্প দাস ও কৃমিদাসদের বাঁচিয়ে রাখতে হবে। সেইজন্য মনু বিধান দিয়েছেন—শুদ্ৰভৃত্যকে উচ্ছিষ্ট অন্ন, জীর্ণ বসন, জীর্ণ শ্যা বা ঘর দান করিবে [১০:১২৫]।
+
{{gap}}‘শূদ্র' নামের এই দাসদের পারিশ্রমিক বা বেতন দিতে হত না। দেবার প্রশ্নই নেই। মনু বলেছেন-দাসত্বের কাজ নির্বাহ করার জন্য বিধাতা শূদ্রকে সৃষ্টি করছেন—“দাস্যায়ৈর হি সৃষ্টোহসৌ ব্রাহ্মণস্য স্বয়ম্ভুবা" [৮:৪১৩]। কিন্তু দাসদের বাঁচিয়ে তো রাখতে হবে, বেগার খাটাবার জন্যেই বাঁচিয়ে রাখতে হবে । শিল্প ও কৃষির দ্বারা নিজেদের ভােগকে চরিতার্থ করার জন্য এইসব শিল্প দাস ও কৃমিদাসদের বাঁচিয়ে রাখতে হবে। সেইজন্য মনু বিধান দিয়েছেন—শুদ্ৰভৃত্যকে উচ্ছিষ্ট অন্ন, জীর্ণ বসন, জীর্ণ শয্যা বা ঘর দান করিবে [১০:১২৫]।
   
 
{{center|O}}
 
{{center|O}}
 
{{center|'''মনু বলেছেন—দাসত্বের কাজ নির্বাহ করার জন্য বিধাতা শূদ্রকে সৃষ্টি'''}}
 
{{center|'''মনু বলেছেন—দাসত্বের কাজ নির্বাহ করার জন্য বিধাতা শূদ্রকে সৃষ্টি'''}}
{{center|'''করেছেন—“দাস্যায়ৈর হি সষ্টোসৌ ব্রাহ্মণস্য স্বয়ম্ভুবা” [৮ঃ৪১৩]।'''}}
+
{{center|'''করেছেন—“দাস্যায়ৈর হি সৃষ্টোহসৌ ব্রাহ্মণস্য স্বয়ম্ভুবা” [৮ঃ৪১৩]।'''}}
 
{{center|'''কিন্তু দাসদের বাঁচিয়ে তাে রাখতে হবে, বেগার খাটাবার জন্যেই'''}}
 
{{center|'''কিন্তু দাসদের বাঁচিয়ে তাে রাখতে হবে, বেগার খাটাবার জন্যেই'''}}
 
{{center|'''বাঁচিয়ে রাখতে হবে। শিল্প ও কৃষির দ্বারা নিজেদের ভােগকে চরিতার্থ'''}}
 
{{center|'''বাঁচিয়ে রাখতে হবে। শিল্প ও কৃষির দ্বারা নিজেদের ভােগকে চরিতার্থ'''}}