তীর্থরেণু/ঋণী ঠাকুর

ঋণী ঠাকুর

নারায়ণ দেউলিয়া এইবার!
লক্ষ লোকেরক কাছে ঋণী প্রভুটি আমার!
প্রভাত হলে দেউল ঘিরে জগৎ ফুকারে,—
‘আমার নিধি দাও হে ঠাকুর ফিরিয়ে আমারে';
তখন মায়ায় হন্ অমনি পাষাণ অবতার।
মরমপাতে খত লিখেছ,—আছে নাম সহি,
চরণ বাঁধা রেখে গেছ,—মাথায় তাই বহি;
এখন ফাঁকি দিবে কি তাই কও না কথা আর?
তুকা বেনে মহাজন আজ ঠাকুর দেনাদার।

তুকারাম।