প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:গীতালি-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রথম ছত্রের সুচী অগ্নিবীণা বাজাও তুমি কেমন ক’রে অচেনাকে ভয় কী আমার ওরে অন্ধকারের উৎস হতে উৎসারিত আলে৷ আগুনের পরশমণি ছোয়াও প্রাণে আঘাত ক’রে নিলে জিনে আপন হতে বাহির হয়ে বাইরে দাড়া আবার শ্রাবণ হয়ে এলে ফিরে আবার যদি ইচ্ছা কর আমার আর হবে না দেরি আমার সকল রসের ধারা আমার সুরের সাধন রইল পড়ে আমি পথিক, পথ আমারি সাথি আমি যে আর সইতে পারি নে আমি হৃদয়েতে পথ কেটেছি আলো যে আজ গান করে মোর প্রাণে গো আলো যে যায় রে দেখা এই আমি একমনে সঁপিলাম তারে এই আবরণ ক্ষয় হবে গো ক্ষয় হবে এই কথাটা ধ’রে রাখিস এই তীর্থদেবতার ধরণীর মন্দিরপ্রাঙ্গণে ৬৭ Y o (* Σ Σb"